রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:২১ পূর্বাহ্ন

সারা বিশ্বে ইসলামের পবিত্র আলো ছড়াচ্ছে ফাতিহা আয়াত

প্রতিনিধির নাম / ১৩৩ বার
আপডেট : রবিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২১
Fatiha Ayat

সারা বিশ্ব ইসলামের আলো ছড়াচ্ছেন ১০ বছর বয়সী বাংলাদেশের মেয়ে ফাতিহা আয়াত। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফাতিহার কোরআনের তাফসির অনেকে প্রশংসা করেছেন সবাই।

জাতিসংঘের জলবায়ু পরিবর্তন ও বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি ও শিশু অধিকার নিয়ে জাতিসংঘে বক্তব্য রেখেছেন এ বিস্ময় বালিকা। হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যাল্যসহ কয়েকটি নামিদামি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষণ দিয়েছে। পেয়েছে অনেক সম্মাননা। ফাতিহা আয়াত জানিয়েছে বড় হয়ে অনেক বড় প্রকৌশলী হতে চায় সে।

পৃথিবীর সব শিশুর জন্য পানি সংরক্ষণাগার বানাতে চায় সে। বিশ্বের যে কজন শিশু ইসলামিক বক্তা কোরআনের তাফসীর করে তার মধ্যে অন্যতম বাংলাদেশের ফাতিহা আয়াত। ছোটবেলা থেকেই কোরআন শরীফ রপ্ত করে। কোরআনের আয়াত ও হাদিসের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করে। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ইসলামের বাণী ছড়িয়ে দেয় বিশ্বের মানুষের কাছে। বাংলা ভাষা-ভাষীদের কাছে ভীষণ জনপ্রিয় এই ছোট্ট শিশু।

১০ বছর বয়সী ফাতিহা নিউইয়র্কে বাস করে। ৫ বছর বয়স থেকে কোরান শিখে। ফাতিহা গণিত ও বিজ্ঞানের ভীষণ দক্ষ। অনলাইনে গণিত ও বিজ্ঞানের খুদে শিক্ষক হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে সে। ফাতিহার মেধার দ্যূতি জাতিসংঘ পর্যন্ত পৌঁছেছে। মাত্র ৭ বছর বয়সে ২০১৮ সালে জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক যুব দিবস সম্মেলনে বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে বক্তব্য রেখে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেয়। ২০১৯ সালে জাতিসংঘের ৭৪তম অধিবেশনের শিশু অবমাননা ও পারিবারিক সহিংসতার বিষয়ে ভাষণ দেন। ফাতিহা স্কটল্যান্ডে চলমান জাতিসংঘ জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলনে গ্লাসকো এগ্রিমেন্টের খসড়া তৈরিতে একজন অংশীদারের ভূমিকা পালন করেন। বিস্ময় বালিকা ফাতিহা ২০২০ সালে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় আন্ডার গ্রাজুয়েট ইউনিসেফ ক্লাব কনফারেন্সে জলবায়ু প্রশমণ টেকসই অভিযোজন বিষয়ে বক্তব্য রাখে। জর্জিয়া টেক বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈশ্বিক জলবায়ু সম্মেলনের লাইটনিং স্পিকারের সম্মাননা পেয়েছে ফাতিহা।

ফাতিহা ফাতিহা বিশ্বের বিভিন্ন নামিদামি প্রতিষ্ঠান ভাষণ দেয়ার সুযোগ পেয়েছে এবং জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। ফাতিহা সাক্ষাৎকারে জানান অ্যামাজন পাবলিশিং থেকে প্রকাশিত হয়েছে তার লেখা বেয়ার উইথ এ বেয়ার এবং সিস্টার্স রিইউনিয়ন। ফাতিহার তৈরি স্পেস রোভার পারসিভিয়ারেন্স এবং হেলিকপ্টার ইঞ্জিনিটিং প্রটোটাইপ প্রদর্শিত হচ্ছে নাসার জেটপ্রবর্সন ল্যাবরেটরিতে।

এতটুকু বয়সে ফাতিহা বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থায় কাজ করছে। প্রতিনিধিত্ব করছে বাংলাদেশকে। ফাতিহার বাবা একজন ব্যারিস্টার-এট-ল এবং মা একজন স্কুল শিক্ষিকা। জন্ম ঢাকার উত্তরায়। চার বছর পর্যন্ত ঢাকায় ছিল। ২০১৫ সালে বাবা-মার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে যায়।

ফাতিহার স্বপ্ন একজন ভূতাত্ত্বিক প্রকৌশলী হওয়ার। বিশ্বের সব শিশুর জন্য বৃষ্টির পানির সংরক্ষণাগার বানাতে চায়। বিশেষ করে যেসব মরুভূমি প্রবণ এলাকায় পানির অপ্রতুলতা রয়েছে। ফাতিহা ইসলামের পবিত্র মহিমা মহান বার্তা ছড়িয়ে দিতে চান সারাবিশ্বে। ফাতিহা শিশুদের জন্য নিরাপদ ও মানবিক বিশ্ব গঠনে স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে যাক এটাই সবার প্রত্যাশা।

Facebook Comments Box


এ জাতীয় আরো সংবাদ

error: Content is protected !!
error: Content is protected !!